একটি ইসরায়েলি মহাকাশযান চাঁদে নামার আগ মুহূর্তেই বিধ্বস্ত হয়েছে।

একটি ইসরায়েলি মহাকাশযান চাঁদে নামার আগ মুহূর্তেই বিধ্বস্ত হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ব্যক্তিগত অর্থায়নে পরিচালিত বিশ্বের প্রথম চন্দ্রাভিযানে বেরেশিট নামের ইসরায়েলি মহাকাশযানটির মূল ইঞ্জিন অকার্যকর হয়ে পড়ার কারণেই এটি চাঁদের বুকে আছড়ে পড়েছে। বেরেশিট নামের ওই মহাকাশযানটির স্বাভাবিকভাবেই চাঁদে নামার কথা ছিল।

চাঁদের ছবি তোলা এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানোর জন্য পাঠানো মহাকাশযানটি অবতরণের সময় কারিগরি সমস্যা দেখা দেয়। তবে সফলভাবে চাঁদে অবতরণ করতে পারলে চাঁদে নামা চতুর্থ দেশের স্বীকৃতি পেত ইসরায়েল।

বিষয়টি নিয়ে প্রকল্পের অন্যতম উদ্যেক্তা ও পৃষ্ঠপোষক মরিস কাহন বলেন, আমরা এটা করতে পারিনি কিন্তু অবশ্যই চেষ্টা করেছি। আমরা যা পেয়েছি সেটাও অসাধারণ ছিল। আমি মনে করি, এজন্য আমরা গর্ব করতে পারি।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহু তেল আবিবে একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে বেরেশিটের চাঁদে অবতরণের পুরো ঘটনা দেখছিলেন।

এদিকে, বেরেশিট বিধ্বস্ত হওয়ার পর তিনি বলেন, যদি প্রথমবারে সফল না হও তবে আবারও চেষ্টা করো।

এ বিষয়ে ইসরায়েলের অ্যারোস্পেস ইন্ডাস্ট্রিজের মহাব্যবস্থাপক অফার ডোরন বলেন, দুর্ভাগ্যবশত আমরা সফলভাবে অবতরণ করতে পারিনি।

উল্লেখ্য, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র ও চীন সরকার পরিচালিত মহাকাশ গবেষণা সংস্থার যানই কেবল চন্দ্রপৃষ্ঠে সফলভাবে নামতে পেরেছে।