জাতীয় দলের স্থায়ী কোচ হতে চান সুজন

বাংলাদেশের পরবর্তী সিরিজ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। তিনি ম্যাচের ওয়ানডে খেলবে টাইগাররা। এই বিভাগের আগে কোচিং বিভাগে দারুণ পরিবর্তন আনছে বিসিবি। তবে আর ২ সপ্তাহের মধ্যে নতুন কোচ আনা সম্ভব।

তা না হলে সুজনকে দেয়া হবে অস্থায়ী কোচের দায়িত্ব। কিন্তু এই দায়িত্ব নিয়ে অনীহা প্রকাশ করেছেন সুজন।এ প্রসঙ্গে সুজন বলেন, ‘আমি পুরো দলের ম্যানেজার। দল নির্বাচন যখন আমরা করি তখন চেষ্টা করি সেরা খেলোয়াড়টি বাছাই করতে।

এরপর কোচিং বিভাগের কাজ। ১৫ জনের স্কোয়াড যায়, তখন কোচরা প্ল্যান করে যে কোন একাদশ খেলবে, কে খেলবে না বা কাকে কোন দায়িত্ব দেওয়া হবে।’তিনি আরও বলেন, ‘আমাকেও চিন্তা করতে হবে।

বারবার এক সিরিজের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন দায়িত্ব নিতে চাই না। সেটা আমার জন্য ঠিক হবে না।’সময়ের আগে টাইগার হেড কোচ রোডসকে বিদায় করে দিল বিসিবি।

তার পরিবর্তে নতুন কোন কোচের নিয়োগের ব্যাপারে তেমন কোন পদক্ষেপ নেই। আর কদিন পরেই লঙ্কা সিরিজ। সে কারনেই এই সিরিজে বিদেশী কোচিং স্টাফ ছাড়ায় খেলতে হতে পারে টাইগারদের।আগামী ২৩ জুলাই শ্রীলঙ্কা সফরের উদ্দশ্যে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

এর ঠিক আগমুহূর্তে বিশ্বকাপে খারাপ করায় স্টিভ রোডসকে বিদায় করে দিল বিসিবি।আগেই চুক্তি ছিল যদি যদি বিশ্বকাপে ভালো করতে পারেন তবেই আবারো নতুন চুক্তি করবে ক্রিকেট বোর্ড।

সমঝোতায় তাকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি। সে কারনে তার পরিবর্তে নতুন কোচ না নিয়োগ হওয়া পর্যন্ত কোচিংয়ের দায়িত্ব পালন করতে পারেন খালাদে মাহমুদ সুজন।

এর আগে হাথুরাসিংহের বিদায় আর রোডসের নিয়োগের মধ্যবর্তী সময়ে কোচিংয়ে দায়িত্ব পালন করেছিলেন সুজন। এছাড়াও বিশ্বকাপে ও বিভিন্ন সিরিজে দলের ম্যানেজার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

এদিকে লঙ্কান সিরিজে তামিম-মুশফিকদের ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জিও থাকছেন না ব্যক্তিগত ছুটির কারণে। এদিকে চুক্তির মেয়াদ না বাড়ানোয় ফাস্ট বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালস,

স্পিন কোচ সুনিল যোশী ও ফিজিও থিহান চন্দ্রমোহনকে বিশ্বকাপ থেকেই বিদায় বলতে হয়েছে। শুধু ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ও বিশ্লেষক শ্রীনিভাস চন্দ্রসেকরন লঙ্কান সিরিজে দলের সঙ্গে থাকছেন বলে জানা যায়।