বিদায় বেলায় যা বলে গেলেন রোডস!

লাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হেড কোচ স্টিভ রোডসের মুখে হাসি না দেখাটা কেমন যেন অস্বাভাবিক। যিনি দারুণ ছনমনে, বন্ধু সুলভ একজন মানুষ।

গত এক বছরে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে কম দেননি বরং বেশিই দিয়েছেন। আগলে রাখার চেষ্টা করেছেন তরুণদের। শুধু বিশ্বকাপে প্রত্যাশা অনুযায়ী ফলাফল না আসায় বিদায় নিতে হলো টাইগারদের ইংলিশ কোচ স্টিভ রোডসকে।

এর আগে গত ২০১৮ সালের জুনে দায়িত্ব নেয়া রোডস আজ ১১ জুলাই ইতি টেনে দিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে সম্পর্কটার। যাবার বেলায় তার মুখে ছিল না কোনও কথা।

অথচ তিনিই কি না বেশি কথা বলতেন গণমাধ্যমের সঙ্গে।চলতি বিশ্বকাপ শেষের আগে রোডসের বিদায় নিয়ে কিছুটা ইঙ্গিত পাওয়া গেলেও সেটা নিশ্চিত ছিল না। রোডসও জানতেন না তাকে বিসিবি রাখবে কি না।

বিশ্বকাপ মিশন শেষে ফেরার সময় ক্রিকপোস্ট প্রতিনিধির সঙ্গে আলাপকালে স্টিভ জানান, চট্টগ্রামে ‘এ’ দলের খেলা দেখতে যাব। সেখানে কথা হবে।এর মানে তিনি তখনও জানতেন না,

বিসিবির এমন সিদ্ধান্তের খবর। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘দুই পক্ষের সমঝোতায় স্টিভ রোডসকে অব্যাহত দেয়া হয়েছে প্রধান কোচের পদ থেকে।’

আর এ নিয়ে বিসিবির পক্ষ থেকে বলা হলেও কিছুই বলতে চাননি রোডস। তাতে ধোঁয়াশা থেকেই যায়। আসলেই কি সমঝোতা!এদিকে গণমাধ্যমকে রোডসের এড়িয়ে চলায় বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন,

‘কথা বলা না বলা এটা যার যার ব্যক্তিগত ব্যাপার। একটা সম্পর্কের যখন ইতি ঘটে তখন এ নিয়ে বিভিন্ন বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। তাই হয়তো এড়িয়ে গেছেন।’

এ সময় নিজাম উদ্দিন চৌধুরী আরও বলেন, ‘আজ রোডসের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকতা ছিল। সেগুলো শেষ করলাম। রোডস সম্ভবত আজই বাংলাদেশ ছাড়বেন।’