মুমিনুলের থেকে ‘বেটার’ কোনো অপশন আমাদের হাতে নেই- সাকিব

মুমিনুল হক। বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক। ফর্মে নেই কাপ্তান নেই। মাঠের পারফরম্যান্সে দলের অবস্থানও সুবিধা জনক নয়।

টেস্ট ফরম্যাটে এমনিতেই বাংলাদেশ দল খুব ভালো খেলছে না। তার ওপর দলের সেরা তারকা, অধিনায়কের ফর্মহীনতা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে।

টানা বেশ কয়েকটা সিরিজে মুমিনুলের ব্যাটে রান নেই। অথচ এক সময় তার ব্যাটেই হাসতো টেস্ট দল। ব্যাট হাতে মুমিনুল মাঠে নামা মানেই হাফ সেঞ্চুরি, সেঞ্চুরি।

টানা অর্ধশতকের রেকর্ডও আছে তার। আছে সেঞ্চুরিরও রেকর্ড। অথচ সেই মুমিনুল যেনো নিজেকে হারিয়ে খুঁজছেন।চট্টগ্রাম টেস্টেও খুব একটা ভাল করেননি।

ঢাকা টেস্টে চরম ভাবে ব্যর্থ হয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। প্রথম ইনিংসে বিপর্যয়ের মুখে নেমে ৯ বলে ৯ রান করে ছিলেন। দ্বিতীয়ও একই অবস্থা।

দল যখন উইকেট হারিয়ে ধুঁকছে, মুমিনুল তখন শূন্য রানে সাজঘরে।প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৬৫ রানের জবাবে শ্রীলঙ্কা দল নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৫০৬ রান করেছে।

১৪১ রানে পিছিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ দল চতুর্থ দিন শেষ করেছে ৩৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে। এখনো পিছিয়ে আছে ১০৭ রানে।দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা সাকিব আল হাসান জানিয়েছেন, এই ম্যাচ বাঁচাতে হলে পঞ্চম দিনে লড়াই করতে হবে।

মুশফিক-লিটন, বা তাদের কেউ একজন দাঁড়িয়ে গেলেই ম্যাচ বাঁচানো যাবে। তবে লাঞ্চ ব্রেকের আগে কোনো উইকেট হারানো যাবে না।

অধিনায়ক মুমিনুল হকের ফর্মহীনতা নিয়ে সাকিব আল হাসান বলেন, ‘এক জন ক্যাপ্টেনের জন্য অবশ্যই এই সময়টা ‘কঠীন’।

বাট এই সময়টায় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে আমরা কি ভাবে তাকে সাপোর্ট করি। কারণ আমাদের টেস্ট ক্রিকেটে যে সিচুয়েশন মুমিনুলের থেকে ‘বেটার’ কোনো অপশন আমাদের হাতে নেই। শুধুমাত্র একটা ইনিংস ওর সবকিছু আবার চেঞ্জ করে দেবে।’