ড্যানিয়েল ভেট্টোরি, ব্যাটিং পরামর্শকের আপডেট

করোনা প্রভাবে মাঠে খেলা ছিলনা দীর্ঘদিন, ছুটিতে থাকা বিদেশি কোচরাও আঁটকা পড়েছিলেন। তবে শ্রীলঙ্কা সফর সামনে রেখে স্পিন কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি ছাড়া প্রায় সব বিদেশি কোচই যোগ দিয়েছিলেন কাজে।

সিরিজ চূড়ান্ত হলে ভেট্টোরিরও বাংলাদেশ হয়ে শ্রীলঙ্কান বিমানে চড়ার কথা ছিল। কিন্তু সফর স্থগিতে আপাতত আসতে হচ্ছে না তাকে। দৈনিক চুক্তিতে কাজ করেন বলে বাংলাদেশের পরবর্তী আন্তর্জাতিক সিরিজ শুরুর আগেই শিষ্যদের নিয়ে কাজ শুরু করবেন।

এদিকে ক্রিকেটারদের নিয়ে স্কিল ক্যাম্প চালানো ও বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের দেখভালের দায়িত্বে থাকা বিদেশি কোচিং স্টাফরা আবারও ছুটিতে গেলেন। প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুকের অধীনেই নিজেদের প্রত্যাবর্তন মিশনে অনুশীলন করেছে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিমরা।

কথা ছিল বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনাল শেষেই দেশে ফিরবেন এই তিন বিদেশি কোচ। কিন্তু আবহাওয়া পূর্বাভাসে বৃষ্টির শঙ্কা থাকায় ২৩ তারিখের ফাইনাল পিছিয়ে ২৫ অক্টোবরে নেওয়া হয়।

যে কারণে আগেই ফ্লাইট নিশ্চিত করে ফেলা এই তিন বিদেশি ২৩ তারিখ মধ্যরাতেই নিজ নিজ দেশের উদ্দেশ্যে বিমানে উঠেন।তাদের ছুটি দেওয়া প্রসঙ্গে আজ (২৫ অক্টোবর) মিরপুরে ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘কিছু কোচিং, ফিটনেস স্টাফকে আমরা ছুটি দিয়েছি ইতোমধ্যেই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ শুরুর আগেই চলে আসবে।’বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ শেষে অন্যান্য কোচিং স্টাফের অনেকেও ছুটি পাচ্ছেন। মূলত আগামী বছর ব্যস্ত সূচি মাথায় রেখেই এমন সিদ্ধান্ত, ‘কিছু স্টাফ থাকবে কিছু থাকবে না। যাদের দরকার আছে তারা থাকবে। যেহেতু আমাদের পরের বছর অনেক সিরিজ আছে, ওদের কথাও চিন্তা করতে হবে।’

এর আগে ব্যাটিং পরামর্শক নিল ম্যাকেঞ্জি চুক্তি নবায়ন না করায় তার পরিবর্তে শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য নিয়োগ দেওয়া হয় নিউজিল্যান্ডের ক্রেইগ ম্যাকমিলানকে।

কিন্তু পারিবারিক কারণে তার যোগ দিতে না পারা এবং শেষদিকে সফরই স্থগিত হওয়ায় পূর্ণ মেয়াদে নিয়োগ দিতেই কাউকে খুঁজছে বিসিবি।

হাতে সময় থাকায় একটু ধীরে এগোচ্ছে বলে জানান আকরাম খান, ‘আজকে আমরা আলাপ আলোচনা করছি। আমরা সময় নিচ্ছি যেহেতু হাতে সময় আছে। যেটা সেরা সিদ্ধান্ত হবে সেটাই আমরা করবো।’