ব্যাট হাতে রানের পাহাড় বল হাতে উইকেটের পর উইকেট বিশ্ব ক্রিকেটকে চমক দেখিয়ে ফাইনালে জেতালেন শোয়েব মালিক

বুড়ো বয়সে আরও একবার জ্বলে উঠলেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক। লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের ফাইনালে ব্যাট-বলে দুর্দান্ত ঝলক দেখিয়েছেন এই অলরাউন্ডার।

টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচে গল গ্ল্যাডিয়েটর্সকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে শোয়েব মালিকের দল জাফনা স্ট্যালিয়ন্স।শিরোপা নির্ধারনি ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় জাফনা স্ট্যালিয়ন্স।

ওপেনিং জুটিতে দুর্দান্ত শুরুর পর অভিষেক ফার্নান্দো এবং জনসন চার্লস ফিরে গেলে ব্যাট হাতে চমক দেখান শোয়েব মালিক।৩৫ বল মোকাবেলায় ৪৬ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন এই অলরাউন্ডার।

১টি ছক্কা ও ৩টি চারে শোয়েব মালিক এই ইনিংস খেলেন। এছাড়া শেষের দিকে থিসারা পেরেরার ১৪ বলে ৩৯ রানের ক্যামিও ইনিংস খেললে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৮ রান সংগ্রহ করে জাফনা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে গল গ্ল্যাডিয়েটর্স। দলীয় মাত্র ৭ রানেই ৩ উইকেট হার‍্যে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে গল।

প্রথম দিকে পড়ে যাওয়া এই ৩ উইকেটের পর চতুর্থ নম্বরে নামা ভানুকা রাজা পাকসের গুরুত্বপূর্ণ উইকেটটি নেন শোয়ে মালিক। মাত্র ১৭ বলে ৪০ রানের ইনিংস খেলে শোয়েব মালিকের বলেই বিদায় নেন ভানুকা।

শেষের দিকে আজম খান সাহান আরচাঞ্জরা চেষ্টা করলেও তা কেবল হারের ব্যবধানই কমিয়েছে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে গল থামে ১৩৫ রানে। ফলে ফাইনালের শিরোপা জিতে নেয় জাফনা স্ট্যালিয়ান্স।

দুর্দান্ত ব্যাট করার পর বোলিংয়ে শোয়েব নিয়েছেন ২টি উইকেট। ৩ ওভার বল করে মাত্র ১৩ রান খরচায় গুরুত্বপূর্ণ ২টি উইকেট নেন শোয়েব।

৩৮ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার যে এখনও ফুরিয়ে যাননি সেই বার্তাই যেন নতুন করে দিয়ে রাখলেন লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের ফাইনাল ম্যাচে এসেও।

ব্যাটে-বলে শোয়েবের এই দুর্দান্ত পারফরম্যান্স জতীয় দলে তার জায়গা আরও কতদিন মজবুত রাখতে পারে সেটাই এখন দেখার বিষয়।