আবারো পরিবর্তন উইন্ডিজের বিপক্ষে ১ম ম্যাচে যেমন উইকেট চায় বিসিবি

দীর্ঘ প্রতিক্ষার প্রহর পার করে বাংলাদেশ দল মাঠে নামতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক ম্যাচে লড়াই করার জন্য। করোনাকালে টাইগারদের প্রত্যাবর্তনটা হয়ত হতে পারত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়েই।

তবে নানা জটিলতায় তা স্থগিত হয়ে যাওয়াতে অপেক্ষা করতে হয়েছে নতুন বছর পর্যন্ত।বাংলাদেশ দল সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল।

গত মার্চে সেই সিরিজটি আয়োজিত হয়েছিল ঘরের মাঠেই। আর ঘরের মাঠে বোলিং বিভাগে দেশের মাটিতে বরাবরই আলো ছড়িয়েছেন স্পিনাররা। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সিরিজেও তাই উইকেট হবে স্পিন সহায়ক এমনটাই আভাস মিলেছে বিসিবির অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খানের কথায়।

ফলে একাদশে দেখা যতে পারে একজন বাড়তি স্পিনারকেও।আকরাম খান জানিয়েছেন অন্যান্য সময়ের মতই হবে ম্যাচের পিচ। তাঁর ভাষ্য, ‘’আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে যে উইকেট থাকে ঐ উইকেটই রাখব।

সাধারণত আপনারা যেমনটা দেখে থাকেন। আমরা বেশি কোনো পরিবর্তন আনতে যাব না।‘’বাংলাদেশের বিপক্ষে উইন্ডিজ দলের শক্তি তুলনামূলক কম।

দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররা বাংলাদেশ সফরে না আসায় তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়েই স্কোয়াড সাজিয়েছে বোর্ড। আকরাম খান অবশ্য জানিয়েছেন তাদের এই দলটিকে হালকাভাবে নেয়ার কোনো সুযোগ নেই।তিনি বলেন, ‘’ওদের কিন্তু মান অনেক ভালো।

ব্যাকআপ খেলোয়াড় অনেক ভালো। আপনি যদি মনে করেন ‘বি’ দল আসছে, তাহলে আমাদের জন্য অনেক বড় ভুল হবে।‘’করোনার এই সময়টাতে সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক সিরিজ খেলা দলটির নাম হল উইন্ডিজ।

যেখানে বাংলাদেশ দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে ১০ মাস ধরে সেখানে নিয়মিতই মাঠে নামতে দেখা গিয়েছিল তাদেরকে। দীর্ঘ সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে থাকলেও এই সিরিজেই স্বরূপে ফিরে আসবেন ক্রিকেটাররা এমন আশা প্রকাশ করে আকরাম খান আরও বলন,

‘’ আমরা আমাদের শক্তির জায়গা নিয়ে চিন্তা করছি। এ ছাড়া অনেকদিন পর আমরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে যাব। ওরা কিন্তু আমাদের চেয়ে এগিয়ে আছে, দুই-তিনটা সিরিজ খেলেছে। আশা করছি প্লেয়াররা ফর্মে ফিরে আসবে।‘’