বিয়ের দেড় মাস পর জানলেন স্ত্রী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা!

বিয়ের মাত্র দেড়মাস। অথচ সেই নববধূই নাকি চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা। চিকিৎসকের কথা শুনে চক্ষু চড়কগাছ শ্বশুরবাড়ির লোকজনের। উত্তরপ্রদেশের মহারাজগঞ্জের ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই হতভম্ব নববধূর স্বামী।

স্ত্রীর বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেছেন স্বামী। দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয় তাদের। কিছু দিন আগে পেটে ব্যথা শুরু হয় নববধূর। আল্ট্রাসোনোগ্রাফি করাতে গিয়েই জানা যায়, তিনি অন্তঃসত্ত্বা।

লিখিত অভিযোগে স্বামী পুলিশকে জানিয়েছেন, দেড় মাস আগে এক আত্মীয়ের সূত্র ধরেই তাঁর সঙ্গে বিয়ে হয় পাশের গ্রামের এক মেয়ের। তাঁর অভিযোগ, বিয়ের দেড় মাস পর তিনি জানাতে পারেন স্ত্রী চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

তার সাথে প্রতারণা করা হয়েছে বলে পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন স্বামী। এ ঘটনায় ওই বধূকে বাড়িতে থাকতে দিতে অস্বীকার করেন তাঁর স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

কীভাবে এমন কাণ্ড ঘটল, তা নিয়ে ধোঁয়াশা ওই নববধূর শ্বশুরবাড়ির লোকজন। গৃহবধূর বাপের বাড়ির লোকজনকে পুরো বিষয়টি জানিয়েছেন তাঁর স্বামী। মেয়ে যে অন্তঃসত্ত্বা, সেকথা না জানিয়ে বিয়ে দেওয়া হয়েছিল বলেই দাবি তাঁর। নববধূ এবং তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে থানায় অভিযোগ করেছেন যুবক। স্থানীয় এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অভিযোগ পেয়ে তাঁরা এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন।