হাসপাতালের ৮ তলার কার্নিশ থেকে নিচে ঝাঁপ দিল রোগী

হাসপাতালের ৮ তলার জানালার কার্নিশ থেকে নিচে ঝাঁপ দেন এক রোগী। শনিবার (২৫ জুন) মল্লিকবাজারের ইনস্টিটিউট অফ নিউরোসায়েন্সের হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। সকাল থেকে এই ঘটনায় হুলুস্থুল পড়ে যায় মল্লিকবাজারে৷

জানা যায়, ওই স্নায়ু রোগীর নাম সুজিত অধিকারী। তিনি হঠাৎ জানালা দিয়ে কার্নিশে চলে আসেন। তারপর উপর থেকে নীচে পথচারীদের হাত নাড়তে থাকেন। যা দেখে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় সকলের। পরে লোকজন উদ্ধারকারীদের খবর দেন। হাইড্রলিক ল্যাডার নিয়ে তাঁরা হাজির হন রোগীকে নামানোর জন্য। রোগীকে নামানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছিল দমকল৷ কিন্তু তিনি ঝাঁপ দিয়ে দেন।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে৷ প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, অত উঁচু থেকে মাটিতে পড়ে যাওয়ায় বাঁচার সম্ভাবনা ক্ষীণ৷ যদিও হাসপাতালের তরফে আগেই নীচে জাল ও গদি বিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল৷ কিন্তু কার্নিশ থেকে পড়ে যাওয়ার সময় শরীরে নানা জায়গায় ধাক্কা খান তিনি৷

এ ঘটনায় তার পরিবারের সদস্যরা নানাভাবে তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করেন৷ কিন্তু নাছোড় সুজিত বারবার অত উঁচু থেকে লাফ মারার হুমকি দিতে থাকেন৷ তাঁকে শান্ত করতে দেওয়া হয় খাবার ও জল৷ যাতে নিচে লাফ না দেয়।

তবে তিনি শেষ পর্যন্ত লাফ মেরে দেন। কিন্তু পড়ে যাওয়ার আগে কিছুক্ষণ কার্নিশে ঝুলে ছিলেন তিনি৷ তবে বেশিক্ষণ ঝুলে থাকতে পারেননি৷ হাত ফস্কে নীচে পড়ে যান৷ এই ঘটনার পরই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাফিলতি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে৷ প্রশ্ন ওঠে দমকলের ভূমিকা নিয়েও৷

খবর আনন্দবাজার, হিন্দুস্তান টাইমস।