ওয়ানডেতে ছক্কার সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন তামিম ইকবাল

গায়ানার প্রভিডেন্স পার্কে প্রথম ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছিলেন টাইগার অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

দুর্ভাগ্যজনকভাবে রানআউটের শিকার হওয়ার আগে মাত্র ২৫ বলে ৩৩ রান করেন তিনি। সেই ইনিংসে একমাত্র ছয়টি মেরেই দেশের হয়ে একটা রেকর্ড গড়েছেন এই ড্যাশিং ওপেনার।

এই ছয়টি ছিল তামিমের ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১০০তম। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের জন্য পরিচিতি পাওয়া তামিম ইকবাল পরিণত বয়সে এসে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অন্য মাত্রায়।

দেশের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক আগেই হয়েছেন তামিম। ওয়ানডে ফরম্যাটে আরেকটি রেকর্ড নিজের দখলে নিয়েছেন তামিম।

প্রভিডেন্স পার্কে ৩৩ রানের ইনিংসে চারটি চার ও একটি ছয় হাকিয়েছিলেন তামিম।অ্যান্ডারসন ফিলিপের বলে ফাইন লেগে হাঁকানো এই ছয়টিই তামিমের ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১০০তম।

বাংলাদেশ অধিনায়ক ওয়ানডে ফরম্যাটে অন্যরকম এক সেঞ্চুরির মালিক বনে গেলেন।বাংলাদেশের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে তামিম ক্রিকেটের কোন সংস্করণে ছয়ের সেঞ্চুরি হাঁকালেন।

তামিমের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ছয় মেরেছেন মুশফিকুর রহিম। তিনি হাঁকিয়েছেন ৮৫টি ছয়। এছাড়া ৫০টির অধিক ছক্কা মেরেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (৭২) ও মাশরাফী বিন মোর্ত্তোজা (৬২)।

ওয়ানডে ফরম্যাটে সাকিব আল হাসানের ছয়ের সংখ্যা ৪৬।তিন ফরম্যাট মিলেও সবার চেয়ে অনেক এগিয়ে তামিম। ১৮৪টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৫৯টি ছয় হাঁকিয়েছেন টাইগারদের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক রিয়াদ। মুশফিকের ছয়ের সংখ্যা ১৫৩ ও টেস্ট অধিনায়ক সাকিব তিন ফরম্যাট মিলে মেরেছেন ১০৯টি ছক্কা।

সাবেক অধিনায়ক মাশরাফী তিন ফরম্যাট মিলে হাঁকিয়েছেন ১০৩টি ছয়। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তামিম ছক্কা সংখ্যা বেশ পিছিয়ে আছেন। ৪০তম ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে ১০০ ছয় মেরেছেন তামিম। সবচেয়ে বেশি ৩৫১ ছয় হাঁকিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি। ক্রিস গেইলের ছক্কার সংখ্যাও তিন শতাধিক।