সিরিজ বাঁচাতে জিম্বাবুয়ের উড়াল দুই টাইগারের

বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের সঙ্গে যোগ দিতে আজ (শনিবার) রাতের ফ্লাইটে জিম্বাবুয়ে যাচ্ছেন ওপেনার নাঈম শেখ এবং পেসার এবাদত হোসেন।

একের পর এক ক্রিকেটাররা ইনজুরিতে পড়ায় তাদের পাঠানো হচ্ছে।জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডেতে লজ্জাজনক হারের দিনে শুক্রবার (৫ আগস্ট) চোটের কারণে সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন সবচেয়ে ইনফর্ম ব্যাটার লিটন দাস।

বাংলাদেশ ইনিংসে সিকান্দার রাজার করা ৩৪তম ওভারের প্রথম বলে সিঙ্গেল নেয়ার জন্য ছুটছিলেন, ক্রিজে পৌঁছানোর আগেই ব্যথা অনুভব করলে মাঠে শুয়ে পড়েন লিটন।

পরে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়তে হয় টাইগার ওপেনারকে। এশিয়া কাপেও তাকে পাওয়া নিয়ে আছে শঙ্কা।এদিকে, লিটন ছাড়াও প্রথম ওয়ানডেতে চোট পেয়েছেন তরুণ পেসার শরিফুলও।

যদিও তার ব্যাপারে বিসিবির চিকিৎসকরা সুনির্দিষ্ট কিছু না বললেও আশঙ্কা করা হচ্ছে, তার ইনজুরির অবস্থাও ভালো না। আর তাই শরিফুলের বিকল্প হিসেবে নেয়া হচ্ছে আরেক পেসার এবাদত হোসেন এবং লিটনের জায়গায় খেলতে পারেন নাঈম শেখ।স্বাগতিক জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারের পর ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু প্রথম ওয়ানডেতেই লজ্জার হারের সাক্ষী টিম টাইগার্স।

এই পরাজয়ও এসেছে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ৯ বছর ও ১৯ ম্যাচ পর।ওয়ানডেকে বলা হয় বাংলাদেশ দলের পছন্দের ফরম্যাট। ৫০ ওভারের ম্যাচে স্বস্তিতে খেলে টাইগাররা। পরিসংখ্যানও তাই বলে। ওয়ানডেতেই বাংলাদেশ বেশি সাফল্য। কিন্তু শুক্রবার (৫ আগস্ট) সেই চিত্রটা যেন পুরোপুরি পাল্টে দিলেন জিম্বাবুয়ের দুই ব্যাটার সিকান্দার রাজা ও ইনোসেন্ট কাইয়া। দুই সেঞ্চুরিয়ানের কারণে ৩০৩ রান করেও হারতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

তবে এ হারের জন্য ক্যাচ মিস আর বাজে ফিল্ডিংকে দুষলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক তামিম ইকবাল।ম্যাচ হারের পর বাজে ফিল্ডিং নিয়ে ক্ষোভ ঝাড়লেন তামিম। বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেন, ‘এই সেই দিন, যেদিন বাজে ফিল্ডিংয়ের খেসারত দিতে হলো। বলতে গেলে প্রতিদিনই আমি ফিল্ডিং নিয়ে কথা বলেছি। বলছিলাম, এর জন্য একদিন না একদিন ভুগতে হবে। আজ সেই দিন।’

এমন ক্যাচ ফসকেছে আগেও, কিন্তু বাংলাদেশ জয় পেয়েছে দিনশেষে। তবে এমন যে সব সময় হয় না, সেটাই মনে করিয়ে দিলেন তামিম। তামিম বলেন, ‘আমরা আগেও ক্যাচ ছেড়েছি, কিন্তু যে কোনোভাবে হোক ম্যাচ জিতে গেছি। কিন্তু যখন আপনি এমন ভালো উইকেটে চারটি ক্যাচ ফেলেন দেবেন, ম্যাচ জিততে পারবেন না। মনে হচ্ছে, এটা নিয়ে আমাদের ভাবতে হবে, আগামী ম্যাচের আগেই।’