লা’শকা’টা ঘরে শুয়ে আছেন বাবা-মা, একনজর দেখতে অপেক্ষায় নবদম্পতি

রাজধানীর উত্তরায় গার্ডারচাপায় আ’হত নবদম্পতি হৃদয় ও রিয়া মনি উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন।

ছাড়া পাওয়ার পরই তারা বাবা-মাকে একনজর দেখতে ছুটে যান সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে। সেখানে ‘লা’শকা’টা ঘরে শুয়ে’ আছেন বাবা-মা।

সোমবার উত্তরায় ক্রেন থেকে থেকে গার্ডার ছিঁ’ড়ে পড়ে এই নবদম্পতির বাবা-মাসহ (হৃদয়ের বাবা ও রিয়া মনির মা) পাঁচজন ঘটনাস্থলে নি’হত হন।

হৃদয় ও ও রিয়ার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার তথ্য নিশ্চিত করে মঙ্গলবার রিয়া মনির মামা মো. আফরান মন্ডল বাবু জানান,

হৃদয় ও রিয়া সকাল ১০টার দিকে ক্রিসেন্ট হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে গেছেন মৃ’ত বাবা-মাকে একনজর দেখার জন্য।

তাদের (নবদম্পতি) শারীরিক অবস্থা এখন কেমন জানতে চাইলে বাবু বলেন, ‘তারা কোমরে,পায়ে এবং বুকে আঘা’ত পেয়েছেন। তবে যতই অ’সুস্থ হোক তাদের তো বাবা-মা মা’রা গেছেন।

তাদের তো মন কাঁ’দে বাবা-মার লা’শ একনজর দেখার জন্য। সোমবার দুপুরে উত্তরার জসিমউদ্দিন সড়কের আড়ং মোড়ে বাস র‌্যাপিড

ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পে ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে প্রাইভেটকারের ওপর পড়লে ঘটনাস্থলে পাঁচজন মা’রা যান।আহ’ত অবস্থায় দুইজনকে উ’দ্ধার করেন স্থানীয়রা।

নিহ’তরা হলেন- নববধূ রিয়া মনির মা ফাহিমা বেগম, বর হৃদয়ের বাবা রুবেল হাসান, রিয়ার খালা ঝর্না এবং তার দুই সন্তান জান্নাতুল ও জাকারিয়া। দু’র্ঘট’না কবলিত গাড়িটি নরসিংদীতে বৌভাতের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে আশুলিয়া যাচ্ছিল।