আগামী দিনে সাকিবের মতো কাউকে পাওয়া কঠিন : ওয়াটসন

বার্ধক্যকে যে শুধু বয়সের ফ্রেমে বাঁধা যায়না নিয়মিতই প্রমাণ করে চলেছে সাকিব আল হাসান। কাগজে-কলমে বয়সের সংখ্যাটা সাকিবের ৩৫!

কিন্তু তার যে ফিটনেস আর ধারাবাহিক পারফরম্যান্স তাতে চাপা পড়ে যায় বয়সের সংখ্যাটা৷ সেই ২৫ বছরের সাকিবের সাথে ৩৫ এর সাকিবের দর্শনে পার্থক্য কেবল ঐ বয়সের সংখ্যাটাই।

তাইতো এই সাকিবকে প্রসংশা না করে থাকাও যায়না। এবার সম্প্রতি আইসিসি রিভিউতে সাকিবকে প্রশংসার সাগরে ভাসিয়েছেন অস্ট্রেলীয় গ্রেট শেন ওয়াটসন।

ওয়াটসন নিজেও ছিলেন অলরাউন্ডার, তাই এই ভূমিকায় ফর্ম ধরে রাখা কতটা কঠিন তা তিনি ভালোই জানেন। সাকিবের সাফল্যের রহস্য জানিয়ে ওয়াটসন বলেন,

‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার দৃষ্টিকোণ থেকে বলতে পারি, অলরাউন্ডার হওয়া চ্যালেঞ্জিং। যখন আপনি দিনের পর দিন খেলছেন তখন নিজের যত্ন নিতে হয় এবং শক্তি সংরক্ষণ করতে হয়,

বিশেষ করে ব্যাটিংয়ের সময়।’এই বিষয়টিই সাকিবকে এগিয়ে রেখেছে উল্লেখ করে তিনি জানান, ‘সাকিব ঠিক এই জিনিসটাই করেছে। এটা অনেক কঠিন।

বাইরে থেকে মনে হতে পারে একজন বাঁহাতি স্পিনারকে হয়ত খুব বেশি শারীরিক শ্রম করতে হয় না। কিন্তু উপমহাদেশের কন্ডিশনে সে অনেক বল করছে।

এরপর আবার দলের ব্যাটিং লাইনআপে মূল ভূমিকা পালন করছে।’ওয়াটসনের ধারণা, আগামী দিনে এই বয়সী কাউকে দাপটের সাথে তিন ফরম্যাটে খেলতে দেখবে না ক্রিকেট বিশ্ব।

তিনি বলেন, ‘তাকে তিন ফরম্যাট খেলতে দেখা বিশেষ কিছু। যেভাবে খেলার পরিমাণ বাড়ছে সেই সাথে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটও আছে,

আগামী দিনে সাকিবের মতো সফলভাবে কাউকে তিন ফরম্যাটে খেলতে দেখা দুর্লভ ব্যাপার হবে। ৩৫ বছর বয়সে প্রায় তিন ফরম্যাটেই ৩০ এর ওপর ব্যাটিং গড় আর ১৫ বছর ধরে বল করে ৩০ গড় নিয়ে বোলিং করে যাওয়া বিশেষ কিছু।’