সুন্দরবনে স্ত্রীর চোখের সামনে জেলেকে ধরে জঙ্গলে নিয়ে গেল বাঘ

এবার পেটের দায়ে কাঁকড়া ধরতে যাওয়াই কাল হলো এক মৎসজীবী শিবপদ জোতদারের। স্ত্রীর চোখের সামনে তাকে গভীর জঙ্গলে টেনে নিয়ে গেলো বাঘ।

আজ মঙ্গলবার ২৩ আগস্ট সকালে সুন্দরবনের ভারত অংশের বসিরহাট রেঞ্জের ৩ নম্বর ঝিলার জঙ্গলে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় কান্নায় ভেঙে পড়েছেন ওই মৎসজীবীর পরিবারের সদস্যরা।এদিকে সংবাদ প্রতিদিন জানায়, সুন্দরবনে প্রাণের ঝুঁকি প্রতিমুহূর্তে।

যেকোনো সময় বাঘের কবলে পড়ার আশঙ্কা থাকেই। তা সত্ত্বেও শুধুমাত্র পেটের দায়ে জঙ্গলে মাছ ও কাঁকড়া ধরতে যান জেলেরা।

আজ মঙ্গলবার ভোরে স্ত্রী ও আরেক জেলের সঙ্গে ঝিলার ২ নম্বর জঙ্গলে গিয়েছিলেন শিবপদ জোতদার। সেসময় আচমকা শিবপদের ওপর চড়াও হয় একটি বাঘ।

এ সময় স্ত্রীর চোখের সামনে তাকে টানতে টানতে নিয়ে যায় গভীর জঙ্গলে। চেষ্টা করেও তাকে উদ্ধার করতে পারেননি তিনি।

খবর পেয়ে বনবিভাগের কর্মীরা শিবপদকে খোঁজার চেষ্টা করছেন। তবে আবহাওয়া খারাপ হওয়ায় জঙ্গলে প্রবেশের ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তাদের।

এদিকে শিবপদের সন্ধান না পেয়ে বাড়ির দিকে রওনা হয়েছেন তার স্ত্রী ও আরেক সঙ্গী।বনবিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শিবপদের খোঁজ করা হচ্ছে।

তাদের কাছে সরকারি অনুমতি ছিল কি না তাও খতিয়ে দেখা হবে। সুন্দরবনের বাসিন্দাদের কাছে এ ঘটনা নতুন নয়।

জঙ্গলে প্রবেশের ক্ষেত্রে একাধিক বিধিনিষেধ থাকলেও পেটের দায়ে প্রতিদিন অনেকেই বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই প্রবেশ করেন জঙ্গলে। বাঘের কবলে প্রাণ হারান বহু মৎস্যজীবী। তা সত্ত্বেও প্রাণ হাতে করে জঙ্গলে যান তারা।