সাড়ে তিন লাখ টাকার বিনিময়ে আম্মু আমাকে বিক্রি করে দিচ্ছিল, প্রকাশ্যে সেই কলেজছাত্রী সুকন্যা

আমি আর মেনে নিতে পারছিলাম না, আমি রাতে ঘুমাতেও পারতাম না। সাড়ে তিন লাখ টাকার বিনিময়ে আম্মু আমাকে বিক্রি করে দিচ্ছিল।

নিখোঁজ কলেজছাত্রী ইয়াশা মৃধা সুকন্যা এমনটাই বলেন তার মায়ের বিরুদ্ধে। প্রায় দুই মাসের বেশি নিখোঁজ থাকার পরে চ্যানেল 24-এর অনুসন্ধানে খোঁজ মিলে ইয়াশার।

এসময় মিলে আরও কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য।নিখোঁজ, আত্মগোপন নাকি নিরুদ্দেশ, ধোঁয়াশায় থাকা প্রশ্নের অনুসন্ধানে, চ্যানেল 24- এর মুখোমুখি হয় ইয়াশা।

বলেন, আমি বাসায় ফিরে যেতে চাই না, কারণ আমি সেখানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগি। কোনসময় আমাকে মেরে ফেলবে আমি জানি না।

তিনি আরও বলেন, আমি রাতে ঘুমাতে পারতাম না ভয়ে। আমাকে বালিশ চাপা দেয়া হত। আমি আমার নানু বাসায় গেলে সেখানেও আমাকে মানসিক ভাবে অত্যাচার করা হত।

নানু খালি বলত, বিয়েটা করে ফেল। সাড়ে তিনলাখ টাকা দিবে, এটা তো কম না। তুই চাইলে আরও দিবে। আমার আম্মু আমাকে সাড়ে তিন লাখ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিচ্ছিল।

নিজের করুণ কাহিনীর বর্ণনায় ইয়াশা বলেন, আমি ক্ষিদা সহ্য করতে পারতাম না। আম্মু সেটা জেনেও আমাকে দুইদিন ঘরে বন্দী করে রেখেছিল। খাবারও দেয়নি। বাথরুমের পানি খেয়ে খেয়ে আমি নিজের জীবন বাঁচিয়েছি।