মামার সাথে দিঘীর ছবি ভাইরাল, উত্তপ্ত মিডিয়া

আলোচনায় যে আসবে সে সমালোচনাতেও থাকবে- এটা বাস্তবসম্মত কথা। আর বেশ কিছুদিন যাবৎ আলোচনার শীর্ষে আছেন শিশু তারকা থেকে নায়িকা হওয়া প্রার্থনা ফারদীন দীঘি।

শিশুশিল্পি হিসেবে একটি মোবাইল অপারেটরের বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। এরপর সিনেমাতেও আলোচনার শীর্ষে উঠে আসেন দীঘি।

‘চাচ্চু’, ‘দাদী মা’, ‘পাঁচ টাকার প্রেম’সহ একের পর এক হিট ছবিতে অভিনয় করেন।শেষ পর্যন্ত সেই ছোট্ট দীঘিও এবার চিত্রনায়িকা হয়ে অভিনয় করতে যাচ্ছেন চলচ্চিত্রে।

সম্প্রতি শাপলা মিডিয়ার পাঁচ ছবিতে নায়িকা হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। তাও আবার এক নায়কের বিপরীতে পাঁচ ছবি। সিদ্ধান্তটা কি হুট করেই নেয়া?উত্তরে তিনি বলেন,

প্রথম থেকেই আমি কোন ছবি করবো আর কোনটা করবো না তার সিদ্ধান্ত নিতেন মা। মা বেঁচে নেই। এখন আমার সব সিদ্ধান্ত নেন বাবা।

শাপলা মিডিয়া এই সময়ে সবচেয়ে বড় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। সেলিম আংকেলও আমাকে মেয়ের মতো স্নেহ করেন। বাবা ভেবে দেখেছেন এই ছবিতে কাজ করলে আমার জন্য ভালো হবে।

আমিও বাবার কথায় রাজি হয়েছি। তাই বলতে পারেন ভেবে চিন্তেই সিদ্ধান্ত নেয়া।তারকা মানেই সোশ্যাল মিডিয়া কেন্দ্রিক একটু ব্যস্ততা থাকবেই।

দীঘিও ভক্তদের জন্য নতুন নতুন ছবি নিয়ে উপস্থিত হন সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছবিতে থাকেন অনেকেই। কিন্তু এবারের ছবিটি একটু অস্বস্তি বয়ে এনেছে দীঘির জন্য।

সম্প্রতি তেমনি একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। যা নিয়ে তীব্র সমালোচনা। পরে দিঘির ফেসবুক ঘেঁটে দেখা গেলো তিনি আর কেউ নন,

দিঘির মামা। উভয়েই একটু ‘অন্তরঙ্গ’ পোজ দিয়ে ঠোঁট বাঁকিয়ে তুলেছেন ছবি। যা সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করেছে। সূত্র-মানবকণ্ঠ