এবার চুক্তির ছবি ফাঁস: অনন্ত জলিলকে ধুয়ে দিচ্ছেন নেটিজেনরা

‘দিন: দ্য ডে’–এর বাজেট ১০০ কোটি টাকা বলে প্রচার করে ঢাকাই সিনেমায় তুমুল আলোচনার জন্ম দিয়েছিলেন প্রযোজক ও অভিনেতা অনন্ত জলিল।

সিনেমা মুক্তির দেড় মাস পর পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম বলছেন, ভুয়া প্রচার করেছেন অনন্ত জলিল।ইরানি পরিচালকের ভাষ্যে,

২০১৮ সালের জুনে মুর্তজা ও জলিলের মধ্যকার চুক্তিপত্রে সিনেমার বাজেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লাখ মার্কিন ডলার; বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ ৪ কোটি টাকার কিছু বেশি।

‘দিন : দ্য ডে’র বাজেটের চুক্তিপত্রটি নিজের ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেছেন ইরানি পরিচালক ও এই সিনেমার সহপ্রযোজক মোর্তেজা অতাশ জমজম।

এছাড়াও সেই পোস্টে বাংলায় একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছেন। এরপর থেকে নেটিজেনদের তোপের মুখে পড়েছেন অনন্ত জলিল।অনন্তর প্রতিটি সিনেমার নামের সঙ্গে ইংরেজি ট্যাগলাইন থেকে।

সেগুলোর সঙ্গে মিলিয়ে নেটিজেনরা তাকে ‘মিথ্যুক- দ্য লায়ার’ বলছেন। আবার কেউ কেউ তাকে সরাসরি আক্রমণ করে লিখেছেন ‘প্রতারক- দ্য চিটার’।চুক্তির ছবি ফাঁস হওয়ায় বিপাকে অনন্ত জলিল। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

এর পেছনে অন্য কারো ইন্ধন আছে।মোর্তজা তার স্ট্যাটাস বাংলায় লিখেছেন। এটা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনন্ত। তিনি বলেন, ইরানি পরিচালককে বাংলা লিখে দিয়েছেন কে?

তিনি তো বাংলা জানেন না! বাংলায় পোস্ট দিলেন কী করে? তার মানে, এর পেছনে কেউ বা কারা আছেন যারা ইন্ধন জোগাচ্ছেন। আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

আমি পরিচালকের সঙ্গে কথা বলে তারপর বিস্তারিত জানাব।এর আগে আরেকটি ইনস্ট্রাগ্রাম পোস্টে অনন্ত জলিলের বিরুদ্ধে চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ আনেন মোর্তজা।

তখন এক দীর্ঘ ফেসবুক স্ট্যাটাসে তার অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন এই নায়ক।উল্লেখ্য, ঈদুল আজহায় সারাদেশে মুক্তি পায় অনন্ত জলিল ও বর্ষা অভিনীত ‘দিন: দ্য ডে’ সিনেমাটি। এতে ইরান, আফগানিস্তান, তুরস্কসহ বিভিন্ন দেশের শিল্পীরা অভিনয় করেছেন। মুক্তির পর সিনেমাটি নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনা দুইটিই হয়েছে।