মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে স্কুলশিক্ষিকাকে পালাক্রমে ধর্ষণ

এবার কক্সবাজার সদরে এক স্কুলশিক্ষিকাকে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

মেহেদী অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে গত শুক্রবার সকালে সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের চান্দেরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১২টায় সদর মডেল থানায় মামলা হয়েছে।

এদিকে মামলায় সদর উপজেলার পিএমখালী ইউনিয়নের ছনখোলা ইউনুছঘোনা এলাকার ২৮ বছর বয়সি বেদার মিয়াসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরও তিনজনকে আসামি করা হয়েছে।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. সেলিম উদ্দিন।এদিকে এজাহারে বলা হয়েছে, গত ১৮ আগস্ট রাতে কক্সবাজার সদরের পিএমখালীর মালিপাড়া থেকে ওই নারী তার এক ভাগনির মেহেদী অনুষ্ঠানে যান।

সেখানে বেদার মিয়া নামে একজনের সঙ্গে কথাপরিচয় হয়। পর দিন সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ওই স্বজনের বাড়ি থেকে ইজিবাইকে করে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন তিনি।

ঝিলংজা ইউনিয়নের বাংলাবাজার ব্রিজ নামক এলাকায় এলে বেদার ও তার সহযোগীরা তাকে আরেকটি ইজিবাইকে তুলে নেয়। ওই ইউনিয়নের চান্দেরপাড়ার একটি নির্মাণাধীন ভবনে নিয়ে অস্ত্রের মুখে তারা তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এদিকে ভুক্তভোগী পরিবারের স্বজনরা জানান, এ ঘটনা পরিবারের লোকজন জানার পর থানায় যোগাযোগ করা হয়। প্রথমে রামু থানা, সেখান থেকে কক্সবাজার সদর মডেল থানায়।

তারা মামলা নিতে চাচ্ছিল না। সোমবার রাতে কক্সবাজার সদর মডেল থানা মামলা নিয়েছে।এ বিষয়ে সদর থানার ওসি সেলিম উদ্দিন বলেন,

‘ভুক্তভোগী নারীর এজাহার পাওয়ার পর মামলা লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে মাঠে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।