জয়ের জন্য সবকিছু সেক্রিফাইজ করতে রাজি আছি: অপু

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। দীর্ঘ দেড় যুগ ধরে সিনেমায় কাজ করছেন তিনি। একটা সময় ইন্ডাস্ট্রির শীর্ষ নায়িকা হিসেবে তুমুল ব্যস্ত সময় পার করেছেন।

মাঝে কিছুটা বিরতি দিয়ে এখন আবারও সিনেমায় নিয়মিত হয়েছেন। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে তার অভিনীত প্রথম কলকাতার সিনেমা ‘আজকের শর্টকাট।’

সিনেমাটির প্রচারণায় এখন কলকাতায় আছেন এই নায়িকা।সেখানে প্রচারণার সময় একটি সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নোত্তর পর্বে কলকাতার সিনেমায় অভিনয়ের অভিজ্ঞতার পাশাপাশি নায়িকার ব্যক্তিজীবনের নানান প্রসঙ্গও উঠে এসেছে।

অপু বিশ্বাসকে জিজ্ঞেস করা হয়, ‘জীবনে কোন ঘটনাটি না ঘটলে খুশি হতেন?’ জবাবে নায়িকা বলেন, ‘শাকিব খানের সঙ্গে বিয়ে। এটা যদি সময় নিয়ে করতাম, বুঝে করতাম তাহলে ভালো হতো।

বিয়ে, বাচ্চা- সবটাই তাড়াতাড়ি করে ফেলেছি।’‘জীবনের কোন ঘটনায় খুশি হয়েছেন?’ বিপরীতমুখী এ প্রশ্নের জবাবে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘মা হওয়াটা।

ভুল করে হলেও মা হয়েছি।’তবে অপু বিশ্বাসের সেই সাক্ষাৎকারের অংশবিশেষ দেশীয় কিছু গণমাধ্যমে ভিন্ন উপস্থাপনে খবর প্রকাশ হওয়ায় আহত হয়েছেন এ নায়িকা।

এ বিষয়ে নিজের ফেসবুকে একটি ভিডিওবার্তা দিয়েছেন তিনি।অপু বিশ্বাস বলেন, ‘কথাটা এভাবে বলিনি, এভাবে বোঝাতে চাইনি। সন্তানকে নিয়ে আমার যুদ্ধ, পথচলা সব আপনারা দেখেছেন।

এ বিষয়ে সবাই জানেন।কথার প্রেক্ষিতে বলেছি, খুব অল্প বয়সে বিয়ে করেছি, বাচ্চা নিয়েছি। হয়তো হুটহাট এই সিদ্ধান্তগুলো ভুল ছিল। স্পেসিফিক আমার সন্তানের জন্য কখনও কোনো ভুল নেই। তার জন্য শুধু ক্যারিয়ার কেন, সবকিছুই সেক্রিফাইজ করতে রাজি আছি।’তিনি আরও বলেন,

‘আমার ভীষণ কষ্ট লাগছে। আপনারা সবাই আমার কাছের মানুষ। আমার চেয়ে বেশি ভালোবাসবেন আমার সন্তানকে। সেখানে স্পেসিফিক আমার কথাটা না বুঝে, ইমোশন না বুঝে এভাবে না লিখলেও হতো।’নায়িকার ভাষ্য, ‘আমি মনে করি, আমার ক্যারিয়ারের পেছনে আপনাদেরও (গণমাধ্যম) অনেক সাপোর্ট আছে।

আপনাদের কারণেই আমার সন্তান আজ সবার কাছে এত প্রিয়, এত ভালোবাসার। আসলে আমি হয়তো বুঝাতে পারিনি। হতে পারে আমার বলাটা আপনাদের কাছে অন্যভাবে গিয়েছে বলেই আপনারা লিখেছেন। অনুরোধ করবো, যারা যারা লিখেছেন, অবশ্যই সংশোধন করে নিবেন।’সন্তান প্রসঙ্গে অপু বিশ্বাস বলেন,

‘আমার সন্তানের ঊর্ধ্বে কিছুই নয়। আমার পৃথিবী, আমার জীবন- সবকিছু মিলে আমার ছেলে আব্রাম খান জয়। তার জন্য আমার যত সেক্রিফাইজ করতে হবে, শতভাগ করবো। সে আমার সবকিছু। তার জন্য আমি যুদ্ধ করে এসেছি, করছি, প্রয়োজনে ভবিষ্যতেও করবো। সবাই আমার এবং সন্তানের জন্য দোয়া, আশীর্বাদ রাখবেন। ভালো থাকবেন, সুন্দর থাকবেন।’