প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ দলের একাদশ

রহমাতুল্লাহ গুরুবাজের মতো ১৮ বলে ৪০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলার মতো ব্যাটার বাংলাদেশ দলেও আছে।

তবে তা মাঠেই প্রমাণ দেবে বাংলাদেশ – সে কথাই জানালেন দলের স্পিন-অলরাউন্ডার মেহিদী হাসান মিরাজ।

এদিকে আফগান দলের দুই স্পিনার রশিদ খান ও মুজিব-উর-রহমানের স্পিনবিষকে নিবির্ষের প্রশিক্ষণ সেরে রেখেছে টাইগাররা।

নেটে দুই ভারতীয় লেগস্পিনার দিয়ে সাকিব-মুশফিকদের ঝালিয়ে নিয়েছেন দলের ট্যাকনিক্যাল পরামর্শক শ্রীধরন শ্রীরাম।সে প্রশ্নে, ওপেনিংয়ে এনামুল হক বিজয় নিশ্চিত।

তার সঙ্গী হিসেবে দেখা যেতে পারে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকেই।এর পর মুশফিক, রিয়াদ ও মিডলঅর্ডারে অলরাউন্ডার আফিফ দলের প্রতিনিধিত্ব করবেন।

প্রয়োজনে হাল ধরবেন মেহেদী হাসান মিরাজ।বোলিংয়ে পেস আক্রমণে মোস্তাফিজুর রহমান ও এবাদত হোসেন নিশ্চিত।

চোট কাটিয়ে দীর্ঘ সময় পর জাতীয় দলে ফেরা অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে দেখা যেতে পারে তাদের সঙ্গী হিসেবে।স্পিনে মিরাজের সঙ্গে দেখা যেতে পারে নাসুম আহমেদকে।

এশিয়া কাপের বাংলাদেশ দলের চূড়ান্ত স্কোয়াড:

এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন (সহ-অধিনায়ক), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত/সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, নাসুম আহমেদ, এবাদত হোসেন।