এত খুশি, এত আনন্দে পরীকে আগে কখনো দেখিনি: শরীফুল রাজ

ঢাকা, ১৭ আগস্ট – সন্তান জন্ম দেওয়ার প্রায় এক সপ্তাহের মাথায় হাসপাতাল থেকে নিজ বাসায় ফিরেছেন মা পরীমনি ও ছেলে রাজ্য।

তাঁরা এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। স্বামী চিত্রনায়ক শরীফুল রাজ খবরটি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, চিকিৎসকের পরামর্শে সোমবার বিকেলে তাঁদের বাসায় আনা হয়েছে।

এখন মা-ছেলে দুজনই সুস্থ ও ভালো আছে। চিকিৎসকের পরামর্শে মাঝেমধ্যে হাসপাতালে গিয়ে রুটিন চেকআপ করতে হবে।বাসায় সারা দিন ছেলের সঙ্গেই সময় কাটায় পরীমনি।

রাজ বলেন, ‘বিছানায় শুয়ে ছেলের সঙ্গে সারাক্ষণ খেলে পরী। মাঝেমধ্যে ছেলেকে রাজ্য রাজ্য বলে ডাকতে থাকে। ছেলে পরীর দিকে একটু তাকালেই পরীর যেন মাথা খারাপ হয়ে যায়।

সে যে কী খুশি হয়, চিৎকার দিয়ে ওঠে। এই দৃশ্য না দেখলে কাউকে বোঝানো যাবে না। তা ছাড়া সন্তান জন্ম দেওয়ার পর মায়ের এক্সসাইটমেন্ট অনেক বেশি থাকে,

সেটি পরীকে দেখে বুঝতে পারছি।’রাজ আরও বলেন, ‘এত খুশি, এত আনন্দে পরীকে আগে কখনো দেখিনি। রাজ্যকে পেয়ে যেন সারা রাজ্যের আনন্দ-খুশি পরীর চোখেমুখে।

কারণ, অনেকগুলো মাস তাকে কষ্ট করতে হয়েছে। আমার কাছে মনে হয়, পরী তার জীবনের সেরা সময় পার করছে।’এই অভিনেতা জানান,

ছেলেকে নিয়ে পরীর যেন দিনরাত শেষ হয় না। এখন থেকেই ছেলেকে নিয়ে তাঁর ভাবনা শুরু হয়ে গেছে। তিনি বলেন, ‘কোন স্কুলে ছেলেকে পড়াবে, কীভাবে বড় করবে,

ছেলেকে নিয়ে কোথায় কোথায় ঘুরতে যাবে, সারাক্ষণ আমাকে বলতেই থাকে। আমি মন দিয়ে পরীর কথা শুনি। হাসতে হাসতে আজ পরী আমাকে বলেছে,

“আমরা আগে দুজন ছিলাম, এখন তিনজন। আমাদের সংসার বড় হয়ে গেল।” হা হা হা…।’রাজ্য কার চেহারা পেয়েছে, রাজের নাকি পরীমনির,

জানতে চাইলে রাজ মজা করে বললেন, ‘অর্ধেক আমার মতো, অর্ধেক পরীর মতো।’ ১০ আগস্ট রাজধানীর একটি হাসপাতালে ছেলেসন্তানের জন্ম দেন পরীমনি।