বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সঙ্গে একই গ্রুপে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আগামী ২৭ অক্টোবর সিডনিতে মুখোমুখি হবে দুই দল।

বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ে নামার আগেই অবশ্য প্রোটিয়াদের বিপক্ষে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছে সাকিব আল হাসানের দল।

বিশ্বকাপ প্রস্তুতির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ খেলবে আফগানদের বিপক্ষেও।আজ বাংলাদেশসহ অংশগ্রহণকারী ১৬টি দলের বিশ্বকাপ ওয়ার্মআপ ম্যাচের সূচি ঘোষণা করেছে আইসিসি।

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ডের খেলা শুরু হবে ১৬ অক্টোবর। দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে আটটি দল।সেরা চারটি দল উঠবে দ্বিতীয় রাউন্ড বা সুপার টুয়েলভে,

যেখানে আগের আসরের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে আগে থেকেই অবস্থান করছে আটটি দল। বাংলাদেশ দল আছে সুপার টুয়েলভের ‘বি’ গ্রুপে,

যেখানে দক্ষিণ আফ্রিকা ছাড়াও প্রতিপক্ষ হিসেবে আছে ভারত ও পাকিস্তান। অপর দুই প্রতিপক্ষ চূড়ান্ত হবে প্রথম রাউন্ড থেকে।

প্রথম রাউন্ডের দলগুলো আগে মাঠে নামবে বলে প্রস্তুতি ম্যাচও রাখা হয়েছে আগে—১০ অক্টোবর থেকে। বাংলাদেশসহ সুপার টুয়েলভে জায়গা করে নেওয়া দলগুলোর প্রস্তুতি শুরু হবে ১৭ অক্টোবর থেকে।

প্রথম দিন ব্রিজবেনের অ্যালান বোর্ডার মাঠে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে আফগানিস্তানের। একই দিন অস্ট্রেলিয়া-ভারত, নিউজিল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ইংল্যান্ড-পাকিস্তান একে অপরের মুখোমুখি হবে।

১৯ অক্টোবর দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। এ ছাড়া আফগানিস্তান খেলবে পাকিস্তানের বিপক্ষে, ভারত খেলবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে।

২২ অক্টোবর অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ। বাংলাদেশ দলের প্রথম ম্যাচ ২৪ অক্টোবর,

প্রথম রাউন্ড ‘এ’ গ্রুপের রানার্সআপ দলের বিপক্ষে।এরপর ২৭ অক্টোবর দক্ষিণ আফ্রিকা, ৩০ অক্টোবর প্রথম রাউন্ডের ‘বি’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন, ২ নভেম্বর ভারত এবং ৬ নভেম্বর পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে।মূল লড়াইয়ের আগে খেলা প্রস্তুতি ম্যাচ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির মর্যাদা পাবে না বলে জানিয়েছে আইসিসি।