রিয়াদ চাইলে মাঠ থেকে বিদায় দিতে চায় বিসিবি!

সাম্প্রতিক সময়ে টি২০ ফরম্যাটে বাজে পারফর্মেন্সের কারণে বেশ আলোচিত নাম মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। অধিনায়কত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে সুকৌশলে।

এবার শোনা যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে চাইছে না বিসিবি।রিয়াদ আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে থাকবেন কি না,

সে বিষয়টিও এখনও পরিষ্কার করেননি ক্রিকেট কর্মকর্তারা। তবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বিষয়ে কথা বলেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন , আমারা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে মাঠ থেকেই বিদায় দিতে চাই। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাজে ফর্মের কারণে দলে জায়গা পাওয়া নিয়েই দ্বিধাদ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছে।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অধিনায়কত্ব হারানোর পরেও ব্যাট হাতে এশিয়া কাপে সন্তোষজনক কিছু করতে পারেননি। তাই আসন্ন বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে তাকে বাদ দেয়ার জোরালো দাবি উঠেছে।

এমনকি নির্বাচক, টিম ম্যানেজমেন্ট ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি বিষয়টি নিয়ে দ্বিধা-বিভক্ত।আজ বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণা হতে পারে এবং সেটি হলেই মাহমুদুল্লাহর ভাগ্যটা নিশ্চিতভাবে জানা যাবে।

যদিও বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, যে কোন খেলোয়াড়ই সুযোগ দিলে তাকে মাঠ থেকেই বিদায় জানাতে চান তারা।

মাহমুদুল্লাহকেও মাঠ থেকেই বিদায় দেয়ার সম্মানটা জানাতে চান। টি২০ ফরম্যাটে এক সময় অপরিহার্য মিডল অর্ডারে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ভরসার প্রতীক ছিলেন।

তাঁর একা হাতে বেশ কিছু ম্যাচ জিতিয়ে ছিলেন।তবে সাম্প্রতিক সময়ে সেই মাহমুদুল্লাহ যেন হারিয়ে গেছেন। তার স্ট্রাইকরেট হঠাৎ করেই অনেক নিচে নেমেছে।

রানও পাচ্ছেন না সেভাবে। এজন্যই এবারের বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে বাদ দেয়ার দাবি উঠেছে চতুর দিকে।বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন,

‘আমরা যদি ওকে জায়গা দিতে না পারি তাহলে ওকে অন্তত মাঠ থেকে অবসর নেয়ার সম্মানটা দেয়া উচিত। রিয়াদের অবদানকে খাটো করে দেখার সুযোগ নেই, ও আমাদের অনেক ম্যাচ জিতিয়েছে।

এমনকি মুশফিকও।মুশফিক অবসর নেয়ায় আমাদের তো খারাপ লাগে, ও আমাদের বহু ম্যাচ জিতিয়েছে।’ তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘোষণা দিয়ে অবসর নিয়েছেন টি২০ থেকে।

কিন্তু এমনটা চান না পাপন। তিনি বলেন, ‘খেলোয়াড়রা নিজেদের মতো অবসরের ঘোষণা না দিয়ে যদি আমাদের সুযোগ দেয়, আমরা সম্মানের সঙ্গে বিদায় দেব, সেটা যে ফরম্যাটই হোক। এই সুযোগটা যেন তারা আমাদের দেয়।’