এবার বিতর্কের সব মাত্রা ছাড়িয়ে গেলেন সাকিব আল হাসান

সাকিব আল হাসানের ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই বিতর্ক যেন অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত এই ক্রিকেটারের সঙ্গে।

বিতর্ক সাকিবকে ভালোবাসে নাকি এই তারকাই যেচে ডেকে নিয়ে আসেন বিতর্ককে? এই উত্তর দেওয়া বেশ কঠিনই বটে।

তবে সম্প্রতি শেয়ার মার্কেট ইস্যুতে সাকিবকে ঘিরে নতুন যে বিতর্ক বাজারে ভেসে বেড়াচ্ছে, সেক্ষেত্রে এই ক্রিকেটারকেই দোষী হিসেবে বিবেচনা করা যায়।

কিছুদিন আগে শেয়ার বাজার কারসাজিতে সাকিবের প্রতিষ্ঠান মোনার্ক হোল্ডিংসের নাম আসায় নতুন বিতর্কের ভাগীদার হন সাকিব।

এবার এই তারকা ক্রিকেটার নিয়ে বিতর্কের যে গুঞ্জন ছড়িয়েছে সেটি ছাড়িয়ে গেছে অতীতের সব বিতর্কের মাত্রাকেও। সাকিব শেয়ারবাজারে ব্যবসা করার জন্য নিজের বাবার নামটাই বদলে ফেলেছেন।

শেয়ারবাজারে ব্যবসা করার জন্য মোনার্ক হোল্ডিংসের অফিসিয়াল নথিতে এই তারকা ক্রিকেটার নিজের বাবার নাম ‘জাল’ করেছেন।

বাংলাদেশের জাতীয় ইংলিশ দৈনিক ডেইলি সান এক প্রতিবেদনে প্রকাশ করেছে, তাদের কাছে প্রাপ্ত মোনার্ক হোল্ডিংসের এক নথিতে সাকিবের বাবার নাম হিসেবে লেখা রয়েছে,কাজী আবদুল লতিফ। অথচ পুরো বাংলাদেশ জানে এই তারকা ক্রিকেটারের বাবার নাম মাশরুর রেজা।

যদিও গণমাধ্যমটির সঙ্গে আলোচনায় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবায়েত-উল-ইসলামের সাকিবের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন।

তিনি সাকিবের ক্ষতি না করার আহ্বান জানিয়ে বলেন,‘এনআইডির মাধ্যমে যথাযথ যাচাই করায় তার (সাকিব আল হাসান) বাবার ভুয়া নাম ব্যবহারের সুযোগ নেই। দয়া করে তার ক্ষতি করবেন না।

তিনি আমাদের শুভেচ্ছা দূত।’যদিও দৈনিকটি সাকিবের বাবা মাশরুর রেজার সঙ্গে যোগাযোগ করে নিশ্চিত হয়েছেন এনআইডি কার্ডে এমন কোনো ভুল নেই। কোথাও নিজের নাম কাজী আবদুল লতিফ হিসেবেও ব্যবহার করেননি সাকিবের বাবা মাশরুর রেজা।

এই তারকা ক্রিকেটার অবশ্য গণমাধ্যমটিকে জানিয়েছে, যদি কোনো ভুল হয়ে থাকে, দ্রুতই সেটি সংশোধন করে ফেলবে তার কোম্পানি।সাকিব গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ব্রোকারেজ ফার্ম ‘মোনার্ক হোল্ডিংস’-এর অনুমোদন পান।

এই কোম্পানির চেয়ারম্যান এই তারকা ক্রিকেটার।মোনার্ক হোল্ডিং চলতি মাসে শেয়ারবাজার-কারসাজিতে জড়িয়ে পড়ে। যার জন্য জরিমানাও গুণতে হয় কোম্পানিটির এমডি আবুল খায়ের হিরোর স্ত্রী কাজী সাদিয়া হাসানকে।